রাজবংশের প্রথম রাজার রাজবাড়ী চাঁচড়া Reviewed by Momizat on . ১৬১০ খ্রীষ্টাব্দে চাঁচড়া রাজবংশ প্রতিষ্ঠিত হয়। মহতাবরাম এ রাজবংশের প্রথম রাজা। ১৬১৯ খ্রীষ্টাব্দে রাজা মহতাব রায়ের মৃত্যু হলে তার জ্যেষ্ঠ পুত্র কন্দর্প রায় রাজ্য ১৬১০ খ্রীষ্টাব্দে চাঁচড়া রাজবংশ প্রতিষ্ঠিত হয়। মহতাবরাম এ রাজবংশের প্রথম রাজা। ১৬১৯ খ্রীষ্টাব্দে রাজা মহতাব রায়ের মৃত্যু হলে তার জ্যেষ্ঠ পুত্র কন্দর্প রায় রাজ্য Rating: 0
You Are Here: Home » পর্যটন কেন্দ্রের খবর » রাজবংশের প্রথম রাজার রাজবাড়ী চাঁচড়া

রাজবংশের প্রথম রাজার রাজবাড়ী চাঁচড়া

Shib-mondir১৬১০ খ্রীষ্টাব্দে চাঁচড়া রাজবংশ প্রতিষ্ঠিত হয়। মহতাবরাম এ রাজবংশের প্রথম রাজা। ১৬১৯ খ্রীষ্টাব্দে রাজা মহতাব রায়ের মৃত্যু হলে তার জ্যেষ্ঠ পুত্র কন্দর্প রায় রাজ্যধিকারী হন। রাজা কন্দর্প রায় খেদাপাড়া হতে উঠে এসে ইমাদপুর পরগণার অন্তর্গত চাঁচড়া গ্রামে বসতি স্থাপন করেন। সুতরাং চাঁচড়ার রাজধানীর স্থাপতি তিনিই। ১৬১৯ হতে ১৬৫৮ সাল পর্যন্ত ৩৯ বছর রাজত্ব করেন রাজা কন্দর্প রায়। এরপর বংশানুক্রমে অনেকেই রাজা হয়েছেন। ১৮৮০ সালে রাজবাহাদুর বরদাকন্ঠ ৪৬ বছর রাজত্ব করে মৃত্যুবরণ করলে তার পুত্র জ্ঞানদাকন্ঠ এ বংশের সর্বশেষ রাজা হন। চাঁচড়া রাজ বংশের কীর্তিচিহ্ন আজও বিদ্যমান। মোঘল আমল হতে ব্রিটিশ আমল পর্যন্ত তারা যে কীর্তি রেখে গেছেন, তা মহাকালের দূর্বার স্রোতে বিলীন হতে চলেছে। যশোর শহর হতে ৩/৪ কিলোমিটার দক্ষিণে চাঁচড়া নামক স্থানে এই রাজবাড়ীটি অবস্থিত।

অবস্থান:

চাঁচড়া বাজার

কিভাবে যাওয়া যায়:

চাঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মাত্র চার কিলোঃ মিটার দূরে চাঁচড়ার রাজবাড়ী অবস্থিত । ১০ নং চাঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভ্যান/ইজিবাইক/বাস এ করে যাওয়া যায়।

© 2011-2013 Powered By BDTRAVELNEWS.COM

Read previous post:
বাংলার ‘কৃষ্ণচূড়া’, বিদেশী ‘মে ফ্লাওয়ার’

বাংলার গ্রীষ্মকালে এখন সুপরিচিত হয়ে উঠেছে কৃষ্ণচূড়া আর মে ফ্লাওয়ার। এরা নিঃসন্দেহে নজর কেড়ে নেয় মনভরে দেয়। অন্য অনেক ফুলই...

Close
Scroll to top